ইন্টেরিয়র-ডিজাইন

ইন্টেরিয়ন ডিজাইন আইডিয়া ও হোম ডেকোরেশন

ঘর হলো মানুষের মনের প্রতিচ্ছবি, সেটা আবাসস্থল হোক বা কর্মক্ষেত্র । একটি ঘরের আসবাবপত্র থেকে শুরু করে এর রং, সাজসজ্জা, আলোকসজ্জা অনেক কিছু বলে; যা মানুষের অপ্রকাশিত মনের কথা। এটা আমাদের আচার-ব্যবহারকে প্রভাবিত করে মনের অজান্তেই। আবাসস্থলের ক্ষেত্রে একটি সুন্দর গোছানো ঘর পরিবারকে মানসিক শান্তি দেয়।

ইন্টেরিয়ন ডিজাইন

আভিজাত্য ফুটিয়ে তুলতে সাহায্য করে সুন্দর সাজানো রুচিশীল বাসস্থান। তবে কর্মস্থলের কথাটা একটু ভিন্ন। এখানে কর্মীদের পাশাপাশি ব্যবসায়িক সম্পর্কের সমন্বয় হয়ে থাকে। তাই প্রতিষ্ঠানের ভাবমূর্তি বজায় রাখা অনেক গুরুত্বপূর্ণ হয়ে দাঁড়ায়। কর্মীদের অনুপ্রাণিত করার পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানের ভাবমূর্তি বাড়াতে কর্মস্থলের সাজসজ্জা করা হয়ে থাকে। কিন্তু এই দুই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের সামঞ্জস্য করা সাধারণ মানুষের জন্য কষ্টসাধ্য হয়।

ইন্টেরিয়ন ডিজাইন

আমাদের জীবনের বেশির ভাগ সময় চলে যায় বাসা আর কর্মস্থলের মাঝেই। তাই এই দুই ক্ষেত্রকে কখনোই হেলাফেলা করা উচিত নয়। ঘর বা অফিসের সাজসজ্জা যেমন আমাদের প্রভাবিত করে, তেমনি অন্যদের কাছে আমাদের প্রতিনিধিত্বও করে থাকে। তাই বলে কেবল দামি-দামি আসবাব আর সজ্জা দিয়ে সাজালেই হবে না। সেই সঙ্গে দরকার প্রয়োজনীয় আলো-বাতাসের সুব্যবস্থা ও বৈদ্যুতিক যন্ত্রের নিরাপদ সংযোগ।

আমাদের সেবা সমুহঃ

  • শো-রুম/সুপারসপ
  • ফ্ল্যাট/বাসা-বাড়ি,ডুপ্লেক্স ইন্টেরিয়র
  • স্টুডিও এপার্টমেন্ট
  • রেস্টুরেন্ট/হোটেল
  • ক্যাফে/কাফেটরিয়া
  • অফিস
  • বায়িং হাউজ
  • ব্যাংক
  • হাসপাতাল
  • রিসোর্ট
  • বিউটি পার্লার ইত্যাদি।

দেয়ালে রূপবদলে ওয়ালপেপার

সব আসবাব সরিয়ে ঘর রং করার সমস্যার সমাধান হতে পারে ওয়ালপেপার। ওয়ালপেপার সহজে পাল্টে দিতে পারে ঘরের চেহারা।

ঘরের দেয়াল রং করার বড্ড হ্যাপা। বড় বড় সব আসবাব সরানো, পুরো বাসা ধুলাবালুতে মাখামাখি করা আর তারপরে কয়েক দিন ধরে সেই রং করার কারণে হওয়া এলোমেলো হওয়া বাসা গোছানো। ব্যস্ত জীবনে এত কিছু করার সময় কোথায়?
আবার শহর মানে বেশির ভাগ ক্ষেত্রে ভাড়াবাড়ি। সেখানে বাসায় ওঠার সময় রং করে দেওয়া হলেও, বছরের পর বছর রং করার আর খবর থাকে না। এত সব সমস্যার এখন সহজ সমাধানের নাম ওয়ালপেপার। ধুলাবালুর ঝামেলা নেই, রঙের কারণে ঘর নোংরা হওয়ার ভয় নেই, শুধু লাগিয়ে নিলেই শেষ।

অন্দরসজ্জায় সারল্যের সৌন্দর্য

পেশাদার স্থপতিরা যেভাবে একই টাইপ ও ফাংশনকে বাড়ির বাসিন্দাদের পছন্দ ও জীবনধারার ওপর ভিত্তি করে নান্দনিক ও প্রযুক্তিগত জ্ঞানের সমন্বয় ঘটিয়ে অন্দরসজ্জাকে শিল্পকে উন্নীত করেন, তার প্রতিফলন দেখা যায় এই তিন বাড়ির অন্দরসজ্জায়। আজ আলোচনা করা হলো তেমন একটি বাড়ি নিয়ে।